করোনা—নতুন আতঙ্ক ‘ল্যাম্বডা’ ভ্যারিয়েন্ট

বিশ্বজুড়ে তাণ্ডব চালাচ্ছে করোনা মহামারী। প্রতিদিন প্রাণ হারাচ্ছেন লাখ লাখ মানুষ। দেশে এখন চলছে করোনার ‘পিক’ সময়। ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট পুরো বিশ্বের সঙ্গে কাঁপাচ্ছে বাংলাদেশকেও। আর এর মধ্যে নয়া দুঃসংবাদ নিয়ে এলো ‘ল্যাম্বডা’ ভ্যারিয়েন্ট।

ভারতের ডেল্টার পর এবার আরেকটি ভ্যারিয়েন্ট পাওয়া গেছে পেরুতে। যেটির নাম ‘ল্যাম্বডা’ ভ্যারিয়েন্ট অথবা সি.৩৭। এটি ডেল্টার চেয়ে একটু বেশি শক্তিশালী হবে বলে গবেষকরা শঙ্কা করছেন। এর উত্থান কেমন হবে তা জানতে ঘুম হারাম গবেষক দলের। করোনার টিকা এই ভ্যারিয়েন্টের ওপর কতটা কার্যকর হবে সেটা যাচাই করতে এখন ব্যস্ত গবেষকরা।

চীন থেকে জন্ম করোনাভাইরাসটি বিভিন্ন দেশে পাল্টেছে নিজের বৈশিষ্ট্য ও কার্যকারিতা। ক্রমে এটি নিজেকে শক্তিশালী করে কেড়ে নিয়েছে লাখ লাখ মানুষের প্রাণ। এখন এই নতুন ভ্যারিয়েন্ট যদি আরো শক্তিশালী হয় তাহলে পুরো বিশ্বে তাণ্ডব চালাতে বেশি সময় নেবে না।

ইতোমধ্যে দক্ষিণ আমেরিকার ৩০টি দেশে এটি ছড়িয়েছে বলে জানিয়েছেন গবেষকরা। গত বছরের মে-জুন মাসে এটি শনাক্ত হয় পেরুতে। প্রায় ৮২ শতাংশ করোনা নমুনা পরীক্ষায় এটির উপস্থিতি পাওয়া যায় বলে জানিয়েছে পেন আমেরিকান হেলথ অরগানাইজেশন (পাহু)। তাই এটিকে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (হু) ‘ভ্যারিয়েন্ট অফ ইন্টারেস্ট’ নাম দিয়েছে।

আর্জেন্টিনা-ইকুয়েডরের পাশাপাশি চিলিতেও প্রায় ৩২ শতাংশ করোনা রোগীর শরীরে এ ভ্যারিয়েন্টের উপস্থিতি পাওয়া গেছে। সেই সঙ্গে সর্বশেষ দেখা মিলেছে যুক্তরাজ্যে। তাদের ৬ জন রোগীর মধ্যে এ ভাইরাস পাওয়া গেছে বলে জানান পাহু’র রিজিওনাল এডভাইজার অন ইমার্জিং ভাইরাল ডিজিজেস জাইরো মেনডেজ।

আলোকিত চট্টগ্রাম

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm