করোনা : চট্টগ্রামে আবার জোড়া মৃত্যুর আঘাত, বাড়ল শনাক্তের হারও

চট্টগ্রাম করোনায় আবার আঘাত হেনেছে জোড়া মৃত্যু। একইসঙ্গে বেড়েছে শনাক্তের হারও।

গত ২৪ ঘণ্টায় চট্টগ্রামে আরও দুই করোনা রোগীর মৃত্যু হয়েছে। এই সময়ে আক্রান্ত হয়েছেন ১ হাজার ১২১ জন। শনাক্তের হার ৩৫.৬৮ শতাংশ।

এর আগের দিনও চট্টগ্রামে জোড়া মৃত্যু আঘাত হেনেছিল। শনাক্তের হার ছিল ৩৪.১৩ শতাংশ।

সর্বশেষ ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্তের ৭৯৭ জন নগর এবং ৩২৪ জন বিভিন্ন উপজেলার বাসিন্দা। এদিন মারা যাওয়া দুজনই উপজেলার বাসিন্দা।

বৃহস্পতিবার (২৭ জানুয়ারি) চট্টগ্রাম সিভিল সার্জন কার্যালয়ের পাঠানো প্রতিবেদন থেকে এ তথ্য জানা গেছে।

আরও পড়ুন : চট্টগ্রামে জোড়া মৃত্যুর দিনে সুনামি গতির করোনায় রেকর্ড

প্রতিবেদন অনুযায়ী, এদিন ১২ ল্যাবে ৩ হাজার ১৪২ নমুনা পরীক্ষা হয়। এরমধ্যে বিআইটিআইডিতে ৬৪৪ নমুনায় ২৭৮ জন, ইম্পেরিয়ালে ৩৯৮ নমুনায় ১১৭ জন, এন্টিজেন টেস্টে ৩২৯ নমুনায় ১২৫ জন, ইপিক হেলথ কেয়ারে ২৯৯ নমুনায় ১৪০ জন, আগ্রাবাদ মা ও শিশু হাসপাতালে ২৭১ নমুনায় ৭৫ জন, চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজে ২৩৪ নমুনায় ৯১ জন, মেডিকেল সেন্টার হাসপাতালে ২৩১ নমুনায় ৩২ জন, চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি ও এনিমেল সাইন্সেস হাসপাতালে ২০১ নমুনায় ৮৯ জন, এশিয়ান স্পেশালাইজড হাসপাতালে ১৯৪ নমুনায় ২১ জন, মেট্রোপলিটন হাসপাতালে ১৫৪ নমুনায় ৭৯ জন, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে ১৪৫ নমুনায় ৪৬ জন এবং আরটিআরএলে ৪২ নমুনায় ২৮ জনের দেহে এ জীবাণু পাওয়া গেছে।

এদিন কক্সবাজার মেডিকেল কলেজ, শেভরন, ল্যাবএইড এবং শাহ আমানত বিমানবন্দরে কোনো নমুনা পরীক্ষা হয়নি।

উপজেলার মধ্যে হাটহাজারী ৪৭ জন, ফটিকছড়ি ৪৬ জন, পটিয়া ৪২ জন, মিরসরাই ৩৪ জন, আনোয়ারা ৩২ জন, সাতকানিয়া ২৭ জন, রাউজান ১৯ জন, বোয়ালখালী ১৬ জন, রাঙ্গুনিয়া ১৫ জন, বাঁশখালী ১৩ জন, চন্দনাইশ ১২ জন, লোহাগাড়া ১১ জন, সীতাকুণ্ড ৬ জন, সন্দ্বীপে ৪ জন আক্রান্ত হয়েছেন। এছাড়া কর্ণফুলীতে এদিন কোনো করোনা রোগী পাওয়া যায়নি।

আরও পড়ুন: ‘সুখবর’—ব্রিটেনে উঠে যাচ্ছে মাস্কের বিধিনিষেধ, ১১ মার্চ থেকে করোনামুক্ত হবে ভারত!

চট্টগ্রামে এ পর্যন্ত আক্রান্ত ১ লাখ ১৬ হাজার ৩৬ জন। এরমধ্যে ৮৪ হাজার ৬৩৭ জন নগর এবং ৩১ হাজার ৩৯৯ জন উপজেলার বাসিন্দা।

মোট মৃত্যু ১ হাজার ৩৫০। যার ৭২৯ জন নগর এবং ৬২১ জন উপজেলার বাসিন্দা।

ডিসি
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm