কক্সবাজারে খুন করে ২০ বছর বাকলিয়ায় লুকিয়ে ছিল যাবজ্জীবন সাজা পাওয়া সন্ত্রাসী দুবাইয়া

কক্সবাজারের আলোচিত ও চাঞ্চল্যকর আক্তার হত্যা মামলার যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত পলাতক আসামি শীর্ষ সন্ত্রাসী মো. সলিম উল্লাহ ওরফে দুবাইয়াকে (৪০) গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব-৭।

বুধবার (১৩ এপ্রিল) রাত সাড়ে ১১টার দিকে বাকলিয়া থানার রাজখালী এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। গ্রেপ্তার সলিম উল্লাহ কক্সবাজার সদর থানার আদর্শ গ্রামের মৃত আহম্মদ হোসেন ওরফে মোহাম্মদ হোসেনের ছেলে।

বৃহস্পতিবার (১৪ এপ্রিল) দুপুরে এ তথ্য নিশ্চিত করেন র‌্যাব-৭ এর সিনিয়র সহকারী পরিচালক (মিডিয়া) মো .নুরুল আবছার।

আরও পড়ুন: রেললাইনে অস্ত্র—কার্তুজ নিয়ে অপেক্ষা, র‌্যাবের অভিযানে ধরা

র‌্যাব সূত্রে জানা যায়, ২০০২ সালের ২৯ জুন কক্সবাজার থানার লারপাড়া কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনাল এলাকায় সন্ত্রাসীরা আক্তার উদ্দিনকে গুলি করে হত্যা করে পালিয়ে যায়। ঘটনার পর আব্বাস উদ্দিন বাদী হয়ে কক্সবাজার মডেল থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন। তদন্ত শেষে গ্রেপ্তার সলিম উল্লাহসহ আদালতে ৮ জন আসামির বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দাখিল করা হয়। আদালত সাক্ষ্যপ্রমাণের ভিত্তিতে চলতি বছরের ১৩ জানুয়ারি একজনকে মৃত্যুদণ্ড ও ৪ জনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেন।

বিষয়টি নিশ্চিত করে র‌্যাব-৭ এর সিনিয়র সহকারী মিডিয়া (মিডিয়া) মো. নূরুল আবছার বলেন, কক্সবাজার জেলার আলোচিত ও চাঞ্চল্যকর আক্রান্ত হত্যা মামলা যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত পলাতক আসামি শীর্ষ সন্ত্রাসী মো. সলিম উল্লাহ ওরফে দুবাইয়াকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। সে দীর্ঘ ২০ বছর ধরে বিভিন্ন জায়গায় আত্মগোপন করেছিল। গোয়েন্দা নজরদারির একপর্যায়ে সে বাকলিয়া থানার রাজাখালী এলাকায় অবস্থান করছে— এমন তথ্যের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

তিনি আরও বলেন, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে সে আক্তার হত্যার ঘটনায় সরাসরি জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছে। আইনানুগ প্রক্রিয়া শেষে তাকে সংশ্লিষ্ট থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

এএইচ/এসআই

মন্তব্য নেওয়া বন্ধ।

ksrm