ওসি আসার আগে আমাকে ফোন দিয়ে আসবে—প্রবাসীর স্ত্রীর মামলায় খেল ধরা

ঘর করতে হলে চাঁদা দিতে হবে, ওসি আসার আগে আমাকে ফোন দিয়ে আসবে— এভাবেই হুমকি দেওয়া হতো মিরসরাইয়ে প্রবাসী আব্দুল কাদের খোকার স্ত্রী সুরমা আক্তার সুমিকে। হুমকির মুখে ইতোমধ্যে ২ লাখ টাকা চাঁদাও দিয়েছেন তিনি। তারপরেও থামেনি হুমাকিদাতারা। অবশেষে তিনজনের নাম উল্লেখ করে জোরারগঞ্জ থানায় মামলা করেন সুমি।

সুমির অভিযোগে মঙ্গলবার (২১ জুন) অভিযান চালিয়ে মামলার প্রধান আসামি হারুনর রশীদকে (৪৫) গ্রেপ্তার করে পুলিশ। গ্রেপ্তার হারুন জোরারগঞ্জ ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ড নন্দনপুর এলাকার জাগির হোসেন সওদাগর বাড়ির মো. রুহুল আমিনের ছেলে।

মামলার বাদি একই এলাকার প্রবাসী আব্দুল কাদের খোকার স্ত্রী সুরমা আক্তার সুমি আলোকিত চট্টগ্রামকে বলেন, ৯ মাস আগে আমার ঘরের কাজ শুরু করি। কাজ শুরুর পর থেকে হারুনর রশীদের নেতৃত্বে তার দুই ভাই এসে আমার কাছে চাঁদা দাবি করে। তারা আমাকে বলে– আপনাদের ঘরের ইট, বালু, সিমেন্ট ও মিস্ত্রিসহ যাবতীয় সব কিছু আমাদের মাধ্যমে হবে। আমরা যদি কোনো মালামাল না দিতে পারি তাহলে মালামাল আনার আগেই আমাদের টাকা দিতে হবে। এ পর্যন্ত আমি তাদেরকে ২ লাখ টাকা চাঁদা দিয়েছি।

আরও পড়ুন: লোহাগাড়ায় ৪২ হাজার ঘনফুট বালু জব্দ—জড়িত ইউপি সদস্যকে শাস্তি

Yakub Group

তিনি বলেন, হারুন বিভিন্ন সময় আমাকে হুমকি দিত। যদি তাদের বিরুদ্ধে থানায় মামলা করি তাহলে জেল থেকে ছুটে এসে আরও ভয়ানক কিছু করবে। তাই এ ভয়ে প্রথমে আমি আইনের আশ্রয় নিইনি। সে আরও বলে– ওসি আসার আগে আমাকে ফোন দিয়ে আসবে।

যোগাযোগ করা হলে জোরারগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) নুর হোসেন মামুন আলোকিত চট্টগ্রামকে বলেন, হারুন নামে একজনের বিরুদ্ধে চাঁদাবাজি মামলা থাকায় তাকে গ্রেপ্তার করে আদালতে পাঠিয়েছি। অন্য আসামিদের গ্রেপ্তারে অভিযান চলছে।

আজিজ/এসআই

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

মন্তব্য নেওয়া বন্ধ।

ksrm