এবার হোটেলে রুম ভাড়া নিয়ে রমরমা দেহ বাণিজ্য, ৫ যুবকের সঙ্গে আটক ৩ তরুণী

নগরের আবাসিক হোটেলগুলো যেন পতিতার হাটে পরিণত হয়েছে।

নগরের চান্দগাঁও থানার বহদ্দারহাট এলাকার এসএ হোটেলের রুম ভাড়া নিয়ে পতিতাবৃত্তি চালিয়ে আসছিল একটি চক্র। সেই চক্রের আট সদস্যকে আটক করেছে পুলিশ।

বৃহস্পতিবার (৬ জানুয়ারি) রাতে বহদ্দারহাট এসএ হোটেলে অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করে চান্দগাঁও থানা পুলিশ।

আরও,পড়ুন : কক্সবাজারে গণধর্ষণ—৩ ধর্ষকই বাহারছড়ার, হোটেল ম্যানেজার আটক

আটকরা হলেন- মনির হোসেন মুন্না (৩০), মো. ইস্কান্দর আলম (২৩), মাহফুজুর রহমান (২৯), আব্দুল আল মামুন (২৪), মো. ইসমাইল (৩২), শারমিন আক্তার ওরফে মুন্নি (২০), সুমি আক্তার ওরফে শারমিন (২৮) ও মনিফা বেগম (৩০)।

জানা যায়, নগরের চান্দগাঁও থানার বহদ্দারহাট এলাকার এসএ আবাসিক হোটেলের রুম ভাড়া নিয়ে একটি চক্র পতিয়াবৃত্তি চালিয়ে আসছিল। প্রতিদিন ওই রুমে নতুন নতুন মানুষ আসাতে সন্দেহ জাগে হোটেল কর্তৃপক্ষের।

বিষয়টি টের পেয়ে হোটেল মালিক নুরজাহান বেগম বাদি হয়ে ১০ জনের নাম উল্লেখ করে একটি মামলা দায়ের করেন। মামলার সূত্র ধরে এসএ হোটেলে অভিযান পরিচালনা করে চান্দগাঁও থানা পুলিশ।

পরে পুলিশের অভিযানে হাতেনাতে ধরা পড়েন পতিতাবৃত্তি পরিচালনা চক্রের আট সদস্য। চক্রটি দীর্ঘদিন ধরে নগরের বিভিন্ন হোটেলে স্থান পরিবর্তন করে পতিতাবৃত্তি চালিয়ে আসছিল।

বিষয়টি নিশ্চিত করে চান্দগাঁও থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মঈনুর রহমান চৌধুরী আলোকিত চট্টগ্রামকে বলেন, নগরের চান্দগাঁও থানার বহদ্দারহাট এলাকার এসএ হোটেলের রুম ভাড়া নিয়ে একটি চক্র পতিতাবৃত্তি পরিচালনা করে আসছিলেন। পরে হোটেল কর্তৃপক্ষ বিষয়টি টের পেয়ে থানায় অভিযোগ করে। অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে অভিযান চালিয়ে আটজনকে আটক করি। তাদের বিরুদ্ধে নিয়মিত মামলা রুজু করা হয়েছে।

এএইচ/ডিসি
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm