‘একি লকডাউন’ মানুষ ভিড় জমাচ্ছে মোড়ে মোড়ে পুলিশের তল্লাশি দেখতে

করোনার সংক্রমণ রোধে সারাদেশে শুরু হয়েছে এক সপ্তাহের ‘কঠোর লকডাউন’। এত কড়াকড়ি সত্ত্বেও লকডাউন দেখতে নানা অজুহাতে বাইরে বেরিয়ে আসছে মানুষ।

বৃহস্পতিবার সকাল থেকে নগরের মূল সড়ক প্রায় ফাঁকা থাকলেও অলি-গলি ছিল নারী-পুরুষের পদচারণায় জমজমাট। ছিল আড্ডাও। বিভিন্ন দোকানপাটও প্রায় খোলা। বেলা বাড়ার সাথে মূল সড়কে ব্যক্তিগত গাড়ি, মোটর সাইকেল চলাচল বাড়তে দেখা যায়। সেই সাথে মানুষের আনাগোনা ছিল চোখে পড়ার মত।

এদিকে আজ বৃহস্পতিবার ভোর থেকে থেকে মাঠে নেমেছে সেনাবাহিনী। নগরের বিভিন্ন প্রবেশ পথে অবস্থান নিয়ে করছেন তল্লাশি।

অন্যদিকে নগরে সেনাবাহিনী, র‍্যাব, বিজিবি, পুলিশের সঙ্গে রয়েছেন ১২ জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট।

এত আয়োজন, কড়াকড়ি ও হুঁশিয়ারির পরও ভয়-ভীতি উপেক্ষা করে সাধারণ মানুষ বাইরে বেরিয়ে আসছে।

মানুষকে ঘরে রাখতে ও অযথা ঘোরাঘুরি নিয়ন্ত্রণ করতে সকাল থেকে মাঠে বেশ তৎপর রয়েছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা। তবুও যেন মানুষের পদচারণা থেমে নেই সড়কে।

এদিকে লকডাউনে অযথা বের হওয়ায় বৃহস্পতিবার নগরের ২১ জনকে জরিমানা ও ৫ গাড়ি জব্দ করেছে পুলিশ। এছাড়া সরকারি অ্যাম্বুলেন্সে যাত্রী পরিবহণের দায়ে জরিমাণা করেছেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট।

আটক ২১, জব্দ ৫ গাড়ি

নগরের ডবলমুরিং থানার আগ্রাবাদ বাদামতলী মোড়ে লকডাউন দেখতে এসে ২১ জন আটক করেছে পুলিশ। এসময় ৫টি গাড়িও জব্দ করা হয়। মামলা দায়ের করা হয়েছে আরও ১০টি গাড়ির বিরুদ্ধে।

বৃহস্পতিবার (১ জুলাই) সকালে বাদামতলী মোড়ে পুলিশ চেকপোস্ট বসিয়ে অভিযুক্তদের আটক ও গাড়িগুলো জব্দ করে।

এদিকে বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১২টায় কর্ণফুলী উপজেলার মইজ্জারটেক এলাকা থেকে যাত্রী পরিবহনের সময় একটি সরকারি অ্যাম্বুলেন্স আটক করা হয়। মইজ্জারটেক এলাকায় বসানো চেকপোস্টে অ্যাম্বুলেন্সটি আটক করা হয়।

পরে উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভূমি) সুকান্ত সাহা ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে ১ হাজার টাকা জরিমানা করেন।

আরবি

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm