উন্নয়নের ধারাবাহিকতা, নাকি পরিবর্তন—অপেক্ষা কয়েক ঘণ্টার

১৮ দিনের টানা জমজমাট প্রচারণা শেষে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে চলছে ভোটগ্রহণ। সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত সিটির ২৭টি ওয়ার্ডের ১৯২টি ভোটকেন্দ্রে টানা ভোটগ্রহণ চলছে। শীত উপেক্ষা করে ভোর থেকেই ভোটারদের কেন্দ্রে আসতে দেখা গেছে। এ নির্বাচন ঘিরে আলোচনা ছিল দেশজুড়েই।

বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে বাড়ছে ভোটার উপস্থিতি। কেন্দ্রগুলোতে পুরুষদের পাশাপাশি নারী ভোটারদেরও ব্যাপক উপস্থিতি দেখা গেছে। তারা জানিয়েছেন, ভিড় ও ঝামেলা এড়াতে ভোরে ভোট দেওয়ার জন্য কেন্দ্রে এসেছেন তারা।

নির্বাচনে মেয়র পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন সাতজন। তবে আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে আছেন আওয়ামী লীগ প্রার্থী সেলিনা হায়াৎ আইভী ও হাতি প্রতীকে স্বতন্ত্র প্রার্থী তৈমূর আলম খন্দকার। উন্নয়নের ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে আওয়ামী লীগের মেয়র পদপ্রার্থী ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভীকে, নাকি পরিবর্তনের স্লোগান নিয়ে আসা তৈমূর আলম খন্দকারকে বেছে নেবেন ভোটাররা- তা জানতে এখন কেবল কয়েক ঘণ্টার অপেক্ষা।

আরও পড়ুন: রাত পোহালেই নির্বাচন : বাঁশখালীতে আওয়ামী লীগ—বিএনপি লড়াই, নাকি অন্য কিছু?

ভোট দিলেন আইভী

নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন (নাসিক) নির্বাচনে ভোট দিয়েছেন ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ মনোনীত মেয়র প্রার্থী ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী। রোববার সকাল ১০টা ৪৮ মিনিটের দিকে ১৬ নম্বর ওয়ার্ডের শিশুবাগ বিদ্যালয়ে ভোট দেন আইভী। ভোটকেন্দ্র থেকে বেরিয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে আইভী বলেন, ‌‘ইনশাআল্লাহ নৌকার জয় হবেই। ভোটের পরিবেশ এখনো ঠিক আছে। নিরপেক্ষ নির্বাচন হলে আমি জিতবো।

সমর্থন আমার পক্ষে—বললেন তৈমূর

নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন নির্বাচনের স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী অ্যাডভোকেট তৈমূর আলম খন্দকার বলেছেন, ভোটারদের সমর্থন হাতির পক্ষে, আমার পক্ষে। ভোটাররা এবার পরিবর্তন চায়। রোববার (১৬ জানুয়ারি) সকাল ৮টা ২৫ মিনিটে মাসদাইর ইসলামিয়া কামিল মাদ্রাসা কেন্দ্রে ভোট দেওয়া শেষে সাংবাদিকদের তৈমূর এ কথা বলেন। তিনি বলেন, প্রশাসন কতটা নিরপেক্ষ থাকে আপনারা দেখবেন।

এদিকে আইডি কার্ডের জন্য রাস্তায় পুলিশ সবাইকে আটকাচ্ছে। এটা না করলে ভালো হয়। তবে বহিরাগতরা যেন না আসতে পারে। তৈমূর বলেন, সিদ্ধিরগঞ্জ পাওয়ার স্টেশনে কেন্দ্রে আমার এজেন্ট ঢুকতে দেওয়া হয়নি। আমি সেখানে যাচ্ছি। সেখানকার নেতাকর্মীরাও যাচ্ছে। আমি মনে করি কেন্দ্রে সিসিটিভি ক্যামেরা থাকলে সুষ্ঠু ভোট হওয়ার সম্ভাবনা বেড়ে যাবে।

এসি
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm