ট্রান্সফরমার চুরি করতে উঠে নামতে পারল না চোর

রাউজানে বিদ্যুতের ট্রান্সফরমার চুরির সময় এক চোরকে হাতেনাতে ধরে গণপিটুনি দিয়ে পুলিশে দিয়েছে স্থানীয় জনতা। পরে ওই চোরকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

বুধবার (৩০ মার্চ) রাতে ১০ নম্বর পূর্ব গুজরা ইউনিয়নের অলিমিয়া হাট এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

আরও পড়ুন: টিন কেটে ২ দোকান থেকে টাকা নিয়ে গেল চোর

আটক চোরের নাম মো. পারভেজ। তিনি রাঙ্গুনিয়া উপজেলার পোমরা ইউমিয়নের ৫ নম্বর ওয়ার্ডের নবাবীপাড়া এলাকায় আবুল বশরের ছেলে।

স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, বুধবার রাতে বিদ্যুৎ বন্ধ থাকার সুযোগে ট্রান্সফরমার চুরি করতে খুঁটিতে উঠে এক চোর । ঘটনাটি দেখতে পেয়ে এলাকার লোকজন থানা পুলিশকে জানায়। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে পল্লী বিদ্যুৎ অফিসে বিষয়টি জানালে সেখান থেকেও লোকজন ছুটে আসে। এর আগে আটক চোরকে ধরে গণপিটুনি দেওয়া হয়।

স্থানীয়রা জানায়, পশ্চিম কদলপুর এলাকায় সেচ প্রকল্পের জন্য বসানো বিদ্যুৎ লাইনের খুঁটি থেকে ট্রান্সফরমার চুরি করে নিয়ে যায় গত দুই মাস আগে। এছাড়া নোয়াপাড়া ইউনিয়নের ব্রাহ্মণ হাট ও কচুখাইন এলাকার ট্রান্সফরমারও চুরি হয়ে যায়। ট্রান্সফরমার চুরি হওয়ার পর ক্ষতিপূণের টাকা পরিশোধ করতে হয় গ্রাহকেদের। ট্রান্সফরমার চুরির ঘটনায় রাউজান থানায় অভিযোগ ও অজ্ঞাত ব্যক্তিদের আসামি করে মামলা করা হলেও কাউকে গ্রেপ্তার করতে পারেনি পুলিশ । ফলে বিভিন্ন এলাকায় ট্রান্সফরমার চুরির ঘটনা দিন দিন বাড়ছে।

আরও পড়ুন: কাভার্ডভ্যান থেকে চুরি করে কুরিয়ারে বুকিং দিতে গিয়ে ধরা খেল ৩ চোর

এ বিষয়ে রাউজান থানার ওসি আবদুল্লাহ আল হারুন আলোকিত চট্টগ্রামকে বলেন, ট্রান্সফরমার চুরি করতে বৈদ্যুতিক খুঁটিতে উঠার সময় এক চোরকে এলাকার লোকজন দেখতে পেয়ে থানায় খবর দেয়। এরপর ঘটনাস্থলে ছুটে যায় পুলিশ। এর আগে স্থানীয়রা চোরকে ধরে গণপিটুনি দেয়। পরে আহত অবস্থায় চোরকে উদ্ধার করে রাউজান হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

পূর্ব গুজরা তদন্ত ফাঁড়ির ইনচার্জ জাহাঙ্গীর আলম জানান, আটক ব্যক্তির নাম মো. পারভেজ। তিনি রাঙ্গুনিয়া উপজেলার পোমরা ইউমিয়নের ৫ নম্বর ওয়ার্ডের নবাবীপাড়া এলাকার আবুল বশরের ছেলে।

শফি/আরবি

মন্তব্য নেওয়া বন্ধ।

ksrm