আলোকিত চট্টগ্রামে প্রতিবেদনের ২ ঘণ্টায় অ্যাকশন—উচ্ছেদ হলো অর্ধশত দোকান

আলোকিত চট্টগ্রামে প্রতিবেদন প্রকাশের দুই ঘণ্টার মধ্যে অভিযান পরিচালনা করেছে উপজেলা প্রশাসন। টানা ৪ ঘণ্টার অভিযানে আনোয়ারা চাতরী চৌমহনী বাজারের সড়ক ও ফুটপাত দখল করে থাকা অর্ধশতাধিক অবৈধ দোকান উচ্ছেদ করা হয়।

বৃহস্পতিবার (৭ এপ্রিল) দুপুর ১টার দিকে এ অভিযান শুরু করেন উপজেলা সহকারী কমিশন (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. তানভীর হাসান চৌধুরী। চার ঘণ্টাজুড়ে চলা এ অভিযান শেষ হয় বিকাল ৪টায়।

আরও পড়ুন: নগরের গুরুত্বপূর্ণ ৩ স্পটে অভিযান—রাস্তা দখল করে রাখা অর্ধশতাধিক দোকান উচ্ছেদ

এর আগে আজ (বৃহস্পতিবার) সকালে আলোকিত চট্টগ্রামে ‘৪০ ফুটের সড়কে শতাধিক দোকান—অবৈধ বাণিজ্যের ফাঁদে যানজটের যন্ত্রণা’ শিরোনামে সংবাদ প্রকাশ হয়। প্রতিবেদন প্রকাশের পর অভিযানের প্রস্তুতি নেই প্রশাসন।

এদিকে একই অভিযানে অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে ইফতারি তৈরি করায় আল বাইক রেস্টুরেন্টকে ৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

সরেজমিন দেখা যায়, সড়ক ও ফুটপাত দখলে রেখে ক্ষুদ্র ও মাঝারি ব্যবসায়ীদের উচ্ছেদ-জরিমানা করা হলেও প্রভাবশালী ব্যবসায়ীদের উচ্ছেদ করা হয়নি। এ নিয়ে চলছে সমালোচনার ঝড়। এ সময় সড়ক ও ফুটপাত দখল করে বসা অর্ধশতাধিক অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়। তবে বেশকিছু অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদের বাইরে থেকে যায়।

এ বিষয়ে চাতরী ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আফতাব উদ্দিন চৌধুরী সোহেল আলোকিত চট্টগ্রামকে বলেন, চাতরী চৌমুহনী বাজারের অনেক ব্যবসায়ী দোকান থাকা সত্ত্বেও ফুটপাত ও সড়কে চলে আসেন ব্যবসা করতে। আজ (বৃহস্পতিবার) তাদের শেষবারের মতো নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এ বিষয়ে নজরদারি বাড়াতে ট্রাফিক পুলিশকে অনুরোধ করা হয়েছে।

আরও পড়ুন:৬ ম্যাজিস্ট্রেটের অভিযানে উচ্ছেদ হলো ৩৭০ অবৈধ স্থাপনা

যোগাযোগ করা হলে উপজেলা সহকারী কমিশন (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. তানভীর হাসান চৌধুরী বলেন, সড়ক ও ফুটপাত দখলে করে যারা ব্যবসা করছেন তাদের উচ্ছেদ করা হয়েছে। অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে ইফতার তৈরি করায় এক রেস্টুরেন্টকে ৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, সড়ক ও ফুটপাত দখল করে যারা দোকান বসিয়ে চাঁদা আদায় করছেন তাদের বিরুদ্ধেও পরবর্তীতে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। সড়ক ও ফুটপাত দখলমুক্ত রাখতে বাজারের ইজারাদারকে নিদের্শনা দেওয়া হয়েছে। এ অভিযান অব্যাহত থাকবে।

অভিযানে স্থানীয় চেয়ারম্যান আফতাব উদ্দিন চৌধুরী সোহেল, উপজেলা প্রশাসন ও ট্রাফিক পুলিশের সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

ইমরান/আরবি

মন্তব্য নেওয়া বন্ধ।

ksrm