ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়—১৪ কোটি টাকা মেরে ‘মামলা’ খেলেন জামায়াতের নায়েবে আমীর

সীতাকুণ্ডে কুমিরায় অবস্থিত আন্তর্জাতিক ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের (আইআইইউসি) ১৪ কোটি ৮৯ লাখ ৮৮ হাজার ৩১৫ টাকা আত্মসাতের অভিযোগ উঠেছে। এ অভিযোগে জামায়াতে ইসলামীর নায়েবে আমীর আ ন ম মুহাম্মদ শামছুল ইসলামসহ ১০ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (৫ আগস্ট) রাতে সীতাকুণ্ড মডেল থানায় ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষে মামলাটি দায়ের করেন অধ্যাপক ড. হুমায়ন কবির। থানা পুলিশ মামলার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা গেছে, আইআইইউসি ট্রাস্টি বোর্ডের নিয়ম অনুযায়ী একটি মাত্র ব্যাংকে হিসাব ও লেনদেন করা যাবে। কিন্তু ট্রাস্টিবোর্ডের সাবেক চেয়ারম্যান বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর নায়েবে আমীর আ ন ম মুহাম্মদ শামছুল ইসলামসহ তাঁর অনুসারী ১০ জন শিক্ষক কর্মকর্তাসহ আরও কয়েকজন এ নিয়ম ভঙ্গ করেছেন তারা পরস্পরের যোগসাজশে বিভিন্ন ব্যাংকে হিসাব খুলে ২০১৭-২০১৮ থেকে ২০২০-২০২১ সাল পর্যন্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের ১৪ কোটি ৮৯ লাখ ৮৮ হাজার ৩১৫ টাকা আত্মসাৎ করেছেন।

আরও পড়ুন: মধ্যরাতে চট্টগ্রামে শিবিরের আস্তানায় পুলিশের হানা, ১৯ নেতাকর্মী আটক 

বর্তমান পরিচালনা কমিটি এই অর্থের হিসাব পায়নি। তাই কর্তৃপক্ষের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. হুমায়ন কবির বাদি হয়ে থানায় মামলা দায়ের করেছেন।

মামলায় প্রধান আসামি করা হয়েছে আ ন ম মুহাম্মদ শামছুল ইসলামকে । অন্য আসামিরা হলেন- প্রফেসর আহসান উল্ল্যাহ ভূঁইয়া, মো. আমীরুজ্জামান, প্রফেসর ড. আবদুল হামিদ চৌধুরী, অধ্যাপক মো. ড. আলী আজাদী, অধ্যাপক কে. এম গোলাম মহিউদ্দিন, তৌফিকুর রহমান, মো. কামাল উদ্দিন, প্রফেসর ড. মো. মাহবুবুর রহমান ও আব্দুল খালেক।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ওসি (তদন্ত) সুমন বণিক আলোকিত চট্টগ্রামকে বলেন, আইআইইউসি বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থ আত্মসাতের অভিযোগে থানায় ১০ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে। তদন্ত কার্যক্রম চলমান রয়েছে।

সীতাকুণ্ড মডেল থানার ওসি মো. আবুল কালাম আজাদ আলোকিত চট্টগ্রামকে বলেন, আইআইইউসি বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে সীতাকুণ্ড ও চট্টগ্রামের বিভিন্ন ব্যাংকে একাউন্ট খুলে অর্থ আত্মসাৎ করা হয়েছে বলে কর্তৃপক্ষ অভিযোগ করেছেন । অভিযোগ তদন্ত করে আসামিদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সালাউদ্দিন/আরবি
1 মন্তব্য
  1. মু খালেদ দেওয়ান বলেছেন

    দারুণ সাংবাদিক !
    আদালতে প্রমাণ হওয়ার আগে আলোকিত চিটাগাং এ চোর প্রমাণ
    ধিক্কার জানাই এই অপ সাংবাদিকতার

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm