ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের পঞ্চম সমাবর্তন ১১ সেপ্টেম্বর, থাকবে নানা আয়োজন

আন্তর্জাতিক ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় চট্টগ্রামের পঞ্চম সমাবর্তন অনুষ্ঠান উপলক্ষে চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবে সংবাদ সম্মেলন হয়েছে। এ সময় সমাবর্তনসহ বিশ্ববিদ্যালয়ের অগ্রযাত্রার নানা দিক তুলে ধরা হয়।

বৃহস্পতিবার (৮ সেপ্টেম্বর) চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবের বঙ্গবন্ধু হলে এ সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

আরও পড়ুন : প্রভাষক ও সহযোগী অধ্যাপক পদে শিক্ষক নিচ্ছে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, আগামী ১১ সেপ্টেম্বর (রোববার) সীতাকুণ্ড উপজেলার কুমিরায় অবস্থিত আন্তর্জাতিক ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় চট্টগ্রামের নিজস্ব ক্যাম্পাসে বিশ্ববিদ্যালয়ের পঞ্চম সমাবর্তন অনুষ্ঠিত হবে। এসময় গ্রেজুয়েটদের পদক ও সনদ প্রদান করবেন শিক্ষা উপমন্ত্রী ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল। সমাবর্তনে বক্তব্য রাখবেন প্রকৌশলী, পরিবেশ বিশেষজ্ঞ ও ইমেরিটাস অধ্যাপক ড. আইনুন নিশাত। বিশেষ অতিথি থাকবেন বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন সদস্য প্রফেসর ড. বিশ্বজিত চন্দ, বিশ্ববিদ্যালয়ের বোর্ড অব ট্রাস্টির চেয়ারম্যান ও চট্টগ্রাম-১৫ আসনের সংসদ সদস্য প্রফেসর ড. আবু রেজা মু. নেজামুদ্দিন নদভী।

আরও জানানো হয়, অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া এ সমাবর্তনে ২০১৬ সালের বসন্ত সেমিস্টার থেকে ২০২০ সালের শরৎ সেমিস্টার পর্যন্ত ১৫ হাজার ৩৬১ জন গ্র্যাজুয়েটকে ডিগ্রি দেওয়া হবে। অনুষ্ঠানে ২ হাজার ১৪০ জন গ্র্যাজুয়েট সরাসরি অংশ নিয়ে সনদ গ্রহণ করবেন। এর মধ্যে ২৯ জনকে চ্যান্সেলর গোল্ড মেডেল অ্যাওয়ার্ড ও ১৩৭ জনকে ভাইস চ্যান্সেলর অ্যাওয়ার্ড দেওয়া হবে।

Yakub Group

সংবাদ সম্মেলনে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর আনোয়ারুল আজিম আরিফ বলেন, ১৯৯৫ সালের ১১ ফেব্রুয়ারি এই বিশ্ববিদ্যালয়ের যাত্রা শুরু হয়েছিল। এরপর থেকে গত ২৬ বছরে দেশের বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর মধ্যে অন্যতম সেরা বিশ্ববিদ্যালয় হিসেবে আইআইইউসি দেশ-বিদেশে খ্যাতি অর্জন করেছে। ২ বিভাগ ও ৪৮ জন শিক্ষার্থী নিয়ে যাত্রা শুরু করা এ বিশ্ববিদ্যালয়ে বর্তমানে ৬টি অনুষদের অধীনে ১৪টি বিভাগে ১২ হাজার শিক্ষার্থী অধ্যয়ন করছে। সীতাকুণ্ডের কুমিরায় নিজস্ব ৫০ একরের সবুজ ক্যাম্পাসে প্রতিষ্ঠিত এ বিশ্ববিদ্যালয়ে ৪২৫ জন উচ্চ ডিগ্রিধারী অভিজ্ঞ শিক্ষক-শিক্ষিকা, ১৩০ জন দক্ষ কর্মকর্তা ও ২২৭ জন কর্মচারী রয়েছেন। ২০২১ সালের ৮ মার্চ বিশ্ববিদ্যালয়ের বোর্ড অব ট্রাস্টিজ পুনর্গঠন করা হয়। পুনর্গঠিত বিওটির পরামর্শে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন স্বল্পসময়ে বেশকিছু যুগান্তকারী পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। আগামী ১১ সেপ্টেম্বর অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া পঞ্চম সমাবর্তনের সমস্ত প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার এএফএম আক্তারুজ্জামান কায়সারের সঞ্চালনায় সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন বোর্ড অব ট্রাস্টির সদস্য ও মিডিয়া, প্রেস, পাবলিকেশন এন্ড এডভারটাইজমেন্ট কমিটির চেয়ারম্যান মো. খালেদ মাহমুদ, ফিন্যান্স কমিটির চেয়ারম্যান ও বিওটির সদস্য ইঞ্জিনিয়ার ড. রশিদ আহমেদ চৌধুরী, বিওটি সদস্য ও ফিমেল একাডেমিক জোনের চেয়ারম্যান রিজিয়া সুলতানা চৌধুরী, বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য ড. মছরুরুল মওলা ও ট্রেজারার প্রফেসর ড. মো. হুমায়ুন কবির।

জেএন/এসআর

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

মন্তব্য নেওয়া বন্ধ।

ksrm