কাশফুলের শুভ্র শরৎ—আকাশে অরুণ আলোর অঞ্জলি, আজ মহালয়া

শরতের আকাশে অরুণ আলোর অঞ্জলি, মাঠজুড়ে কাশফুলের শুভ্রতা। শরতের কাশফুল জানান দিচ্ছে, আসছে পুজো। বাঙালির সবচেয়ে বড় পুজো, দুর্গাপুজো।

আজ (২৫ সেপ্টেম্বর) মহালয়ার মধ্যদিয়ে সূচিত হবে দেবীপক্ষের। বসুন্ধরাকে শস্যে ভরিয়ে দিতে মা এবার পৃথিবীতে আসবে গজে। আর কৈলাসে ফিরবেন নৌকায়। ফলে পৃথিবীতে হবে শস্যবৃদ্ধি ও জলবৃদ্ধি।

এবার মাতৃবন্দনায় চট্টগ্রামের প্রতিটি মণ্ডপ প্রস্তুত। পুলিশের পক্ষ থেকেও নেওয়া হয়েছে ৪ স্তরের কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা।

আরও পড়ুন: দেবীপক্ষের সূচনা—শুভ মহালয়া আজ

সরেজমিন নগরের বিভিন্ন মণ্ডপ ঘুরে দেখা যায়, শিল্পীর তুলিতে অপরূপে সাজে সাজানো হয়েছে মা’কে। প্রতিমা তৈরির কাজ প্রায় শেষ বললেই চলে। দেবী দুর্গাকে দশভুজায় সাজাতে এখন ব্যস্ত সময় পার করছেন মৃৎশিল্পীরা।

Yakub Group

সদরঘাট কালীবাড়ির শিল্পী শ্যামল পাল আলোকিত চট্টগ্রামকে বলেন, প্রতিমায় রঙের কাজ প্রায় শেষ। এখন বাকি শুধু সাজসজ্জা। আগামী তিনদিনের মধ্য প্রতিমা পৌঁছে যাবে মণ্ডপে। তাই দিনতো বটেই, রাতেও করতে হচ্ছে সাজসজ্জার কাজ।

এবার নগরের ২৮২ মণ্ডপে হবে দুর্গাপূজা। আগামী পহেলা সেপ্টেম্বর ষষ্ঠীপুজোর মধ্যদিয়ে শুরু হবে মাতৃবন্দনার।

চট্টগ্রাম মহানগর পূজা উদযাপন কমিটির সাধারণ সম্পাদক হিল্লোল সেন উজ্জ্বল আলোকিত চট্টগ্রামকে বলেন, এবার একযোগে পুরো নগরের ২৮২ মণ্ডপে হবে শারদীয় দুর্গোৎসব। পুজো নির্বিঘ্ন করতে ইতিমধ্যে সিটি মেয়র, পুলিশ কমিশনার ও বিভাগীয় কমিশনারের সঙ্গে আলোচনা হয়েছে। পুজো নির্বিঘ্ন করতে থাকছে পুলিশের কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা। প্রতিটি মণ্ডপে থাকবে সিসি ক্যামেরা।

আরও পড়ুন: দুর্গাপূজায় বাধা, হিন্দুদের হাজারো লোক ঘেরাও করল কৈবল্যধাম মন্দির

যোগাযোগ করা হলে চট্টগ্রাম মেট্টোপলিটন পুলিশ কমিশনার কৃষ্ণ পদ রায় আলোকিত চট্টগ্রামকে বলেন, আসন্ন শারদীয় দুর্গোৎসব যাতে সনাতন ধর্মালম্বীরা নিরাপদে পালন করতে পারে সেজন্য সিএমপির পক্ষ থেকে নেওয়া হয়েছে ৪ স্তরের কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা। প্রতিটি মণ্ডপে সিসি ক্যামেরা বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। দর্শনার্থীদের নিরাপত্তা দিতে মণ্ডপে মণ্ডপে সাদা পোশাকে পুলিশ থাকবে।

প্রসঙ্গত, দুষ্টের দমন ও সৃষ্টির পালন করতেই জগৎজননী মা দুর্গার বসুন্ধরায় আগমন। প্রতিবছর দেবী দুর্গাকে মাতৃরূপে বন্দনা করেন মর্ত্যবাসীরা।

সনাতন ধর্মমতে, দশরথপুত্র রাম ত্রিলোক জয়ী লঙ্কার রাজা রাবনের সঙ্গে বিজয়ী হতে এই শরতেই অকাল বোধন করেছিল দেবী দুর্গাকে। তাই কালে কালে এই দুর্গাপূজা হয়ে উঠেছে বাঙালি সনাতন ধর্মালম্বীদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসবে।

আলোকিত চট্টগ্রাম

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

মন্তব্য নেওয়া বন্ধ।

ksrm