খবর নেই পিসিআর মেশিনের, চিন্তায় আরব আমিরাতের চট্টগ্রাম প্রবাসীরা

বিদেশগামীদের যাত্রার আগমুহূর্তে করোনা টেস্ট করাতে বাংলাদেশের বিমানবন্দরগুলোতে পিসিআর মেশিন বসানোর সিদ্ধান্ত নেয় সরকার। এ যন্ত্রের মাধ্যমে চার ঘণ্টার মধ্যে কোভিড টেস্ট করাতে পারবেন বিদেশগামী যাত্রীরা।

৬ সেপ্টেম্বর ঢাকায় সচিবালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানিয়েছিলেন মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম। তিনি জানান, শুরুতে ঢাকার হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পিসিআর মেশিন বসানো হবে। দুই-তিন দিন কিংবা যত দ্রুত সম্ভব এটি সম্পন্ন করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

মন্ত্রিপরিষদ সচিবের আনুষ্ঠানিক ঘোষণার ৭ দিন পার হয়ে গেলেও বিমানবন্দরে এখনো বসেনি পিসিআর মেশিন। ফলে সংযুক্ত আরব আমিরাতগামীসহ বিভিন্ন দেশের যাত্রীদের উদ্বেগ, শঙ্কা কাটছে না।

আরও পড়ুন: দুশ্চিন্তায় আমিরাত প্রবাসীরা, দুর্দশা লাঘবে সরকারের সহযোগিতা চান

জানা গেছে, সারাদেশে ২৫-৩৫ হাজার সংযুক্ত আরব আমিরাত প্রবাসী রয়েছে। তার মধ্যে দুবাইওয়ালা অধ্যুষিত চট্টগ্রামে রয়েছে কেবল ২০ হাজার। আমিরাত থেকে দেশে ছুটিতে আসা কয়েক হাজার প্রবাসী লকডাউনে আটকে পড়েন।

করোনার প্রভাব বেড়ে যাওয়ায় সংযুক্ত আরব আমিরাত ১৩ মে বাংলাদেশ থেকে বিমান চলাচল বন্ধ ঘোষণা করে। তাই তখন আর ফিরতে পারেননি প্রবাসীরা। দীর্ঘদিন ধরে কর্মস্থলে ফিরতে না পারায় ইতোমধ্যে অনেকের ভিসা ও ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠানের চু্ক্তির মেয়াদ শেষ হয়ে গেছে। ৪ আগস্ট বাংলাদেশসহ ছয় দেশের যাত্রীদের ট্রানজিট সুবিধা চালু করে ইউএই।

Thai Food

তবে সংযুক্ত আরব আমিরাতগামীদের জন্য বিমান বন্দরে র্যাপিড পিসিআর টেস্ট বাধ্যতামূলক ঘোষণা করে দেশটি। এতে ২০ হাজার প্রবাসী চরম বিপাকে পড়েন। আরব আমিরাত সরকারের নিয়মানুযায়ী যেখান থেকে যাত্রীরা বিমানে ফ্লাই করবেন, তার ৬ ঘণ্টা আগে অবশ্যই র্যাপিড পিসিআর টেস্ট করিয়ে নেগেটিভ সনদ নিয়ে সেখানে যেতে হবে। যদিও পরে ৬ ঘণ্টার স্থলে ৪৮ ঘণ্টা করা হয়।

এ নিয়ে কয়েকদিন ধরে ঢাকা, চট্টগ্রাম ও সিলেটের প্রবাসীরা আন্দোলন ও প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি দিয়েছেন৷ ৬ সেপ্টেম্বর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ৩ দিনের মধ্যে বিমান বন্দরে র্যাপিড পিসিআর মেশিন স্থাপনের নির্দেশ দেন। তবে বিমানবন্দরে র্যাপিড পিসিআর মেশিন স্থাপনের জন্য জায়গা নির্ধারণ ও অন্যান্য কাজ করতেই ৭ দিন পার করল কর্তৃপক্ষ।

আরও পড়ুন: যুবক নিহত—আরব আমিরাতে ফেরার স্বপ্ন নিমিষেই শেষ ট্রাকের ধাক্কায়

র্যাপিড পিসিআর মেশিন স্থাপনে দেরি হওয়ায় উদ্বেগের শেষ নেই সংযুক্ত আরব আমিরাতগামীদের। দেশটির সিংহভাগ প্রবাসী চট্টগ্রামের হওয়ায় প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রণালয় ও বিভিন্ন এজেন্সিতে প্রতিদিন শত শত মানুষ ভিড় করছে।

আটকেপড়া প্রবাসীরা প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের বিভিন্ন কমকর্তা ও এজেন্সির লোকজনের কাছে জানতে চাচ্ছেন বিমানবন্দরে র্যাপিড পিসিআর মেশিন কখন স্থাপন কবে হবে। তারা কখন ফিরতে পারবেন কর্মস্থলে। কিন্তু মিলছে না কোনো সদুত্তর।

এসি

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm