আগুনে পুড়ে শেষ নববধূর রঙিন স্বপ্ন

আগুনে পুড়ে শেষ নববধূর রঙিন স্বপ্ন। মাত্র এক মাস আগে শুরু করেছিলেন নতুন জীবন, স্বামীর সংসার। হাতের মেহেদির রঙ শুকানোর আগেই পুড়ে অঙ্গার হয়ে গেছে নববধূ ইয়াসমিনের (২১) দেহ। শুক্রবার (১১ মার্চ) ভোরে কুমিল্লার বরুড়া উপজেলার ঝলম ইউনিয়নের ঢেউয়াতলী গ্রামে আগুনে পুড়ে মৃত্যু হয় ইয়াসমিনের নববধূর।

ইয়াসমিন ঢেউয়াতলী গ্রামের আলতাফ মিয়া বাড়ির রেজাউলের স্ত্রী। ফায়ার সার্ভিস ও স্থানীয় সূত্র জানায়, ভোর সাড়ে ৫টার দিকে গ্যাস সিলিল্ডার বিস্ফোরণে রেজাউলের ঘরে আগুন লাগে। মুহূর্তে পুরো ঘর আগুনে পুড়ে ছাই হয়ে যায়।

আরও পড়ুন: ‘আগুনের আঁচ’—আবার বাড়ল সোনার দাম

এ সময় ঘরের মধ্যে ঘুমিয়ে থাকা নববধূ ইয়াসমিন পুড়ে যান মাত্র এক মাস আগে তাদের বিয়ে হয়। অগ্নিকাণ্ডের আগেই তার স্বামী রেজাউল ফজর নামাজ পড়তে মসজিদে যান। মসজিদ থেকে এসে নিজ বাড়িতে আগুনের লেলিহান শিখা দেখতে পান রেজাউল।

পরে ৯৯৯ নম্বরে খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের দুটি ইউনিট ঘটনাস্থলে পৌঁছে প্রায় ঘণ্টাখানেক চেষ্টার পর আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। আগুন নিভে গেলে নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে বরুড়া থানায় হস্তান্তর করা হয়।

বরুড়া ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের ভারপ্রাপ্ত স্টেশন অফিসার আসাদুজ্জামান জানান, প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে গ্যাস সিলিল্ডার বিস্ফোরণের ফলে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটতে পারে। তদন্ত শেষে এ বিষয়ে পরিষ্কার হওয়া যাবে।

এসি

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm