হাটহাজারীতে ‘রহস্যের’ আগুনে পুড়ল ৩ বাস

রাতের আঁধারে ‘রহস্যজনক’ আগুনে পুড়ল পার্কিংয়ে থাকা তিনটি বাস।

রোবাবার (১৪ নভেম্বর) গভীর রাতে হাটহাজারী উপজেলার বড়দীঘির পাড় এলাকায় ‘হঠাৎ কলোনিতে’ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে৷

হাটহাজারী ফায়ার সার্ভিসের দুটি ইউনিট এসে আগুন নেভালেও ততক্ষণে সর্বশান্ত হয়ে যান গাড়ির ৩ মালিক।
এ ঘটনায় বাস মালিকরা থানায় গেলে মামলা নেয়নি হাটহাজারী মডেল থানা পুলিশ।

পরিবহন মালিক শ্রমিক নেতারা জানান, রোববার দিবাগত রাত ২টার দিকে বড়দীঘির পাড়ের পশ্চিমে ভাটিয়ারী রোডের ‘হঠাৎ কলোনি’ মাঠে পার্কিং করা তিনটি বাসে আগুন লাগে। স্থানীয়রা হাটহাজারী ফায়ার সার্ভিস ও ডিফেন্সে খবর দিলে তাদের দুটি ইউনিট এসে আগুন নেভায়। বাস তিনটির আনুমানিক মূল্য ৮০ লাখ টাকা।

Thai Food

আরও পড়ুন : চান্দগাঁওয়ে ঝুট গুদামে আগুন, নিয়ন্ত্রণে ফায়ার সার্ভিসের ৫ ইউনিট

তারা অভিযোগ করেন, বাস পার্কিংয়ের জায়গায় ভাড়া নিয়ে দুপক্ষের ঝামেলার কারণে এ আগুনের ঘটনা ঘটেছে। একটি বাস পার্কিং বাবদ মাসিক ১ হাজার ২০০ টাকা ভাড়া আদায় করে একটি পক্ষ। তবে কয়েকমাস ধরে পার্কিংয়ের জায়গা নিয়ে বিরোধ দেখা দেয়। সেই বিরোধের কারণেই গাড়িগুলোতে আগুন দেওয়া হয়েছে।
তবে হাটহাজারী থানায় মামলা করতে গেলে ‘মশার কয়েল থেকে আগুনের সূত্রপাত’ দাবি করে মামলা নেয়নি পুলিশ।

নাজিরহাট-খাখড়াছড়ি বাস-মিনিবাস মালিক সমিতির সাংগঠনিক সম্পাদক মো. শাহজাহান আলোকিত চট্টগ্রামকে বলেন, তিনটি বাস পুড়ে মালিকরা সর্বশান্ত হয়েছে। আমাদের সন্দেহ পার্কিংয়ের জায়গার মালিকানা নিয়ে দ্বন্দ্বের কারণে এ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। আমরা সমিতির নেতাদের সঙ্গে আলোচনা করব। আগ্নিকাণ্ডের মূল রহস্য উদ্ঘাটনে ফায়ার সার্ভিসকে তদন্তের জন্য আবেদন করব এবং আইনি পদক্ষেপ নেব।

হাটহাজারী ফায়ার সার্ভিস ও ডিফেন্স লিডার মো. ফজল মিয়া বলেন, বাসের আগুন লাগার খবর পেয়ে আমাদের দুটি ইউনিট গিয়ে তা নেভায়। প্রাথমিকভাবে মশার কয়েল থেকে আগুনের সূত্রপাত বলে জানা গেছে। তবে শত্রুতা বা অন্য কোনো সূত্র থেকে আগুনের সূত্রপাত কিনা তা তদন্তের পরে জানা যাবে।

সিএম/ডিসি
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm