এতিমের টাকা মেরে খেলেন আওয়ামী লীগ নেতা, ২০ জনের কাঁধে মামলা

চকরিয়ায় চেয়ারম্যানের স্বাক্ষর জাল করে এতিমখানার অর্থ আত্মসাতের অভিযোগে মামলা হয়েছে। মামলায় অভিযুক্ত করা হয়েছে স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতাসহ আরও ২০ জনকে।

রোববার (১২ সেপ্টেম্বর) চকরিয়া সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে এ অভিযোগ দায়ের করেন সুরাজপুর-মানিকপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আজিমুল হক। বিচারক অভিযোগটি মামলা হিসেবে অন্তর্ভুক্ত করে সিআইডিকে তদন্ত করে প্রতিবেদন দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন।

মামলায় ১০ জনের নাম উল্লেখ করে আরও ৮-১০ জনকে অজ্ঞাত আসামি করা হয়েছে। আসামিরা হলেন— পূর্ব সুরাজপুর এলাকার রব্বত আলীর ছেলে নুরুল কাদের, মো. ইসমাইলের ছেলে আজিজ উল্লাহ, আশেক আহমদের ছেলে আবদুর রাজ্জাক, ওসমান গণির ছেলে জাফর আলম, আবুল হোসেনের ছেলে হারুনুর রশিদ, আকতার আহমদের ছেলে মো. ইদ্রিস, দক্ষিণ সুরাজপুরের মো.কাইছারের ছেলে আবদুল্লাহ রায়হান, মানিকপুরের আবদুছ সালামের ছেলে ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক রুস্তম শাহরিয়ার, পূর্ব ভিলেজারপাড়ার মোক্তার আহমদের ছেলে মো. আইয়ুব ও মাহাবুবুল আলমের ছেলে মো. রুবেল।

আরও পড়ুন: ছাত্রলীগ নেতা নোবেল হত্যা—৩২ জনকে আসামি, তালিকায় আওয়ামী লীগ নেতাও

মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, সুরাজপুর-মানিকপুর ইউনিয়নে একশ একর সরকারি খাস জমির ওপর কক্সবাজার জেলা প্রশাসন ‘নিভৃতে নিসর্গ’ নামে একটি একটি পর্যটন স্পট গড়ে তোলেন। এছাড়া বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে ৪০ শতক জায়গার উপর আশ্রয়ন প্রকল্পের কাজ চলমান। এসব উন্নয়নকাজে বাধা দিচ্ছে প্রতিপক্ষের লোকজন।

Thai Food

সুরাজপুর ইসলামীয়া হেফজখানা ও এতিমখানার অর্থ আত্মসাতের উদ্দেশ্যে সুরাজপুর-মানিকপুর ইউনিয়ন পরিষদের প্যাড, বাদীর স্বাক্ষর ও সিল জালিয়াতি করে জীবিত মানুষকে মৃত দেখিয়ে মৃত্যুসনদ তৈরি করা হয়। এ মৃত্যুসনদ দেখিয়ে উল্লেখিত আসামিদের যোগসাজশে এতিমদের নামে বরাদ্দ টাকা আত্মসাৎ করা হয়। মৃত্যুসনদ দেওয়ার ক্ষেত্রে ইউনিয়ন পরিষদে সরকারিভাবে একটি রেজিস্ট্রার রয়েছে। কিন্তু প্রদর্শিত মৃত্যুসনদ রেজিস্ট্রারে লিপিবদ্ধ নেই।

এ বিষয়ে সুরাজপুর-মানিকপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আজিমুল হক আজিম আলোকিত চট্টগ্রামকে বলেন, আমার স্বাক্ষর জালিয়াতি করে জাল মৃত্যুসনদ তৈরি ও এতিমখানার অর্থ আত্মসাতকারীদের নামে মামলা করেছি। বিচারের মাধ্যমে তাদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাই।

আরও পড়ুন: ডিবির হাতে অপহরণের ‘নাটক’ সাজিয়ে মালিকের টাকা আত্মসাতের চেষ্টা

তিনি আরও বলেন, আমার জনপ্রিয়তায় ঈর্ষান্বিত হয়ে প্রতিপক্ষের লোকজন এটি করেছে। তারা আমার স্বাক্ষর জাল করে মৃত্যুসনদ বানিয়ে আমার বিরুদ্ধে মিথ্যা প্রোপাগান্ডা ছড়াচ্ছে।

অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে সুরাজপুর-মানিকপুর ইউনিয়নর আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক রুস্তম শাহরিয়ার আলোকিত চট্টগ্রামকে বলেন, আমার বিরুদ্ধে যেসব অভিযোগ আনা হয়েছে সব সম্পূর্ণ মিথ্যা, বানোয়াট ও ভিত্তিহীন। চেয়ারম্যান নিজের অপকর্ম ঢাকতে মামলা দায়ের করেছেন।

মুকুল/আরবি

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm