আওয়ামী লীগ নেতাকে গাছের সঙ্গে বেঁধে মেরে আটক হলেন পুত্রসহ ইউপি চেয়ারম্যান

পটিয়ায় আওয়ামী লীগ নেতাকে গাছের সঙ্গে বেঁধে মেরে পুত্রসহ ইউপি চেয়ারম্যানকে আটক করেছে পুলিশ।

শনিবার (৩০ এপ্রিল) ভোরে তাদের পটিয়া থেকে আটক করা হয়।

আরও পড়ুন: আওয়ামী লীগ নেতাদের ‘প্রকাশ্যে’ পিটিয়ে শক্তি দেখালেন ‘এমপি’ বদি

আটকরা হলেন- হাইদগাঁও ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান বিএম জসিম (৫৫) ও তাঁর ছেলে ওয়াসি (২৪)।

এর আগে শুক্রবার (২৯ এপ্রিল) ইফতার মাহফিলের ব্যানারে নিজের নাম না থাকায় আওয়ামী লীগ নেতাকে মেরে রক্তাক্ত করে খালি গায়ে গাছের সঙ্গে বেঁধে রাখা হয়।

এ বিষয়ে পটিয়া থানার পরিদর্শক (ওসি) রেজাউল করিম মজুমদার বলেন, হাইদগাঁও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি জিতেন কান্তি গুহকে মারধরের ঘটনায় আজ (শনিবার) ভোরে হাইদগাঁও ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান বদরুউদ্দিন জসীম ও তাঁর ছেলে ওয়াসিকে আটক করা হয়েছে।

আরও পড়ুন: বিএনপি নেতা বনে গেলেন আওয়ামী লীগ সভাপতি—তুমুল বিতর্কে কমিটি বাতিল

তিনি আরও বলেন, এ ঘটনায় আহত জিতেন কান্তির ভাই তাপস কান্তি গুহ বাদী হয়ে ৭ জনের নাম উল্লেখ করে এবং আরো ৪-৫ জনকে অজ্ঞাত আসামি করে পটিয়া থানায় একটি মামলা করেছেন শুক্রবার রাতে। ঘটনার সঙ্গে জড়িত সবাইকে আইনের আওতায় আনা হবে।

এদিকে আওয়ামী লীগ নেতা জিতেন কান্তি গুহের রক্তাক্ত ও গাছের সঙ্গে বেঁধে রাখার ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হওয়ার পর এ নিয়ে সমালোচনার ঝড় উঠে।

আরবি/আলোকিত চট্টগ্রাম

মন্তব্য নেওয়া বন্ধ।

ksrm