আওয়ামী লীগের দুঃসময়ে কাউন্সিলর এয়াকুবের ত্যাগ স্মরণীয়—আ জ ম নাছির

চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন বলেছেন, মরহুম এয়াকুবের মত তৃণমূল নেতাকর্মীদের ত্যাগ-তীতিক্ষার কারণেই বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ আজকের অবস্থানে এসে পৌঁছেছে। এ ধরনের নেতারা সংগঠনকে দিতে আসেন, নিতে আসেন না। দলের দুঃসময়ে তাঁর নিঃস্বার্থ ত্যাগ স্মরণীয় হয়ে থাকবে।

শুক্রবার (২৫ জুন) সন্ধ্যায় ৭ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ সাবেক কাউন্সিলর এবং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি মো. এয়াকুবের শোকসভায় তিনি একথা বলেন।

সভা হামজারবাগ রহমানিয়া উচ্চ বিদ্যালয় অডিটোরিয়ামে অনুষ্ঠিত হয়।

মহানগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাহতাব উদ্দিন চৌধুরী বলেন, তৃণমূল নেতাকর্মীরাই আওয়ামী লীগের মূল শক্তি। আওয়ামী লীগের দুঃসময়ে তৃণমূলের নেতাকর্মীরাই রাজপথে নামে। এদের মূল্যায়ন করতে না পারলে দলে ত্যাগী নেতাকর্মীর সৃষ্টি হবে না।

Yakub Group

৭ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি কাজী রাশেদ আলী জাহাঙ্গীরের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক এম আবদুর রহিমের সঞ্চালনায় সভায় মহানগর আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা শফর আলী, সাংগঠনিক সম্পাদক নোমান আল মাহমুদ, সংরক্ষিত ওয়ার্ড কাউন্সিলর জেসমিন পারভীন জেসি, আবদুল মালেক, আবদুল হাই, নাসির উদ্দিন মোল্লা, এসকান্দর এসকো, রফিউল হায়দার রফি, এসএম খালেদ বাবলু, আবরার হায়দার, মনির আহম্মদ, মো.ফরিদ, অ্যাডভোকেট তসলিম, গিয়াস উদ্দিন, সানাহ উল্লাহ শাহনু, মৌলভী তাজুল ইসলাম, মো. জাহেদুল আলম, আবুল কালাম সরদার, হাজী নাছের আলম, মো. আলমগীর, আবদুল সাদেক, হাজী সাইফুল ইসলাম, সাখাওয়াত হোসেন সাকু, আবদুর রহিম, দেলোয়ার হোসেন, এমএ আজিজ, শাহেদ হায়দার খান, মাহমুদুল হক আবু, হোসনে আরা পারুল, নুরনাহার বেগম বেবী, নাঈম আশরাফ অভি, রায়হান উদ্দিন ঈশান, মো. মুছা, আজম খান, সৈয়দ শামসুল ইসলাম, সাবের আহম্মদ প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

আলোকিত চট্টগ্রাম

 

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm