আলোকিত চট্টগ্রামে প্রতিবেদন, আওয়ামী লীগের অ্যাকশন—৭ বিদ্রোহী বহিষ্কার আনোয়ারায়

আনোয়ারায় আওয়ামী লীগের বিদ্রোহীদের বিরুদ্ধে অ্যাকশন শুরু হয়েছে। ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে নৌকার বিরোধিতা করায় ৭ নেতাকে বহিষ্কার করেছে দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগ।

ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন নিয়ে গত ২১ ডিসেম্বর ও আজ ২৮ ডিসেম্বর দুটি প্রতিবেদন প্রকাশ করে আলোকিত চট্টগ্রাম।

এদিকে বহিষ্কৃতদের স্থায়ীভাবে বহিষ্কার করতে কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের কাছে সুপারিশ পাঠানোর সিদ্ধান্ত হয়েছে। সোমবার (২৭ ডিসেম্বর) রাতে দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সভায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় বলে জানান দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি মোছলেম উদ্দিন আহমদ এমপি ও সাধারণ সম্পাদক মফিজুর রহমান।

আরও পড়ন: আনোয়ারায় বিদ্রোহী প্রার্থীর সঙ্গে সমর্থক নেতা-কর্মীদের বিরুদ্ধেও কঠোর হচ্ছে আওয়ামী লীগ

বহিষ্কৃত নেতারা হলেন— আনোয়ারার বারশত ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ নেতা মো. আমিনুল হক চৌধুরী, রায়পুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সভাপতি আমিন শরীফ ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সদস্য ফজলুল কাদের, বরুমছড়া ইউনিয়নে উপজেলা আওয়ামী লীগ সদস্য শাহাদাত হোসেন চৌধুরী ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক আবুল বশর এবং দক্ষিণ জেলা কৃষক লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক দিদারুল ইসলাম টিপু।

এ বিষয়ে দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মফিজুর রহমান আলোকিত চট্টগ্রামকে বলেন, কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের নির্দেশনা অনুযায়ী এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। একইসঙ্গে তাদের স্থায়ীভাবে বহিষ্কার করতে সুপারিশসহ নামের তালিকা ঢাকায় পাঠানো হচ্ছে।

তিনি আরও বলেন, আওয়ামী লীগের প্রার্থীদের বিপক্ষে অবস্থান নিয়ে তৃণমূল নেতা-কর্মীদের মধ্যে বিভেদ সৃষ্টি করায় তাঁদের বহিষ্কার করা হয়েছে। এছাড়া বিদ্রোহী প্রার্থীর পক্ষে যেসব নেতা-কর্মী প্রচার-প্রচারণায় অংশ নিয়েছেন তাদের বিরুদ্ধেও শিগগির সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

আরও পড়ুন: প্রচারণায় সরগরম আনোয়ারা—৬ ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের ঘরের শত্রু বিভীষণ

প্রসঙ্গত, আনোয়ারার নির্বাচন নিয়ে ইতিপূর্বে দুটি প্রতিবেদন প্রকাশ হয় আলোকিত চট্টগ্রামে। ২১ ডিসেম্বর সন্ধ্যা ৬টা ১৮ মিনিটে প্রকাশ হয় ‘আনোয়ারায় বিদ্রোহী প্রার্থীর সঙ্গে সমর্থক নেতা-কর্মীদের বিরুদ্ধেও কঠোর হচ্ছে আওয়ামী লীগ’। আজ মঙ্গলবার দুপুর ১টা ৪৯ মিনিটে প্রকাশ হয় ‘প্রচারণায় সরগরম আনোয়ারা—৬ ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের ঘরের শত্রু বিভীষণ’

ইমরান/আরবি

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm