২ ভিনদেশির নৌকায় মিলল ৭ কোটি টাকার আইস—ইয়াবা

টেকনাফে প্রায় ৭ কোটি টাকার আইস, ইয়াবাসহ দুজন ভিনদেশি নাগরিককে আটক করেছে বিজিবি। এ সময় একটি কাঠের নৌকাও জব্দ করা হয়।

শনিবার (২ এপ্রিল) ভোরে টেকনাফ—২ বিজিবি ব্যাটালিয়ন সদর ও দমদমিয়া বিওপির পৃথক দুটি বিশেষ টহল দল জালিয়ার দ্বীপ এলাকা থেকে তাদের আটক করে। এ সময় তাদের কাছ থেকে ১ কেজি ৬৯ গ্রাম আইস এবং ৫৪ হাজার পিস ইয়াবা পাওয়া উদ্ধার করা হয়।

আটক দুজনই মিয়ানমারের নাগরিক। তারা হলেন- মো. সিরাজ উদ্দিনের ছেলে মো. জুবায়ের আহমদ (২২) এবং মন্ডু হাসসুরাতা ধাওনখালীর মৃত আব্দুল গণির ছেলে মো. রফিক (২৩)।

আরও পড়ুন: ঘর নয়, যেন মাদকের আখড়া—৫ কোটি টাকার আইস-ইয়াবাসহ তরুণী ধরা

এ বিষয়ে টেকনাফ—২ বিজিবি ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লে. কর্ণেল শেখ খালিদ মোহাম্মদ ইফতেখার জানান, মিয়ানমার থেকে মাদকের চালান আসার গোপন সংবাদে আজ (শনিবার) ভোরে পৃথক দুটি টহল দল জালিয়ার দ্বীপ এলাকায় অবস্থান নেয়। কিছুক্ষণ পর মিয়ানমারের শোয়ার দ্বীপ থেকে কয়েকজন ব্যক্তি একটি কাঠের নৌকা নিয়ে শূন্য রেখা অতিক্রম করে জালিয়ার দ্বীপের দিকে আসতে থাকে। দাঁড়ানোর সংকেত দেওয়া হলে মাদক চোরাচালানীরা নৌকা ঘুরিয়ে মিয়ানমারের দিকে চলে যাওয়ার চেষ্টা করে। এ সময় ফাঁকা গুলিবর্ষণ করে তাদের ধাওয়া করা হয়। একপর্যায়ে একজন নাফনদীতে ঝাঁপ দেয়। পরে নৌকাসহ মো. সিরাজ উদ্দিনের ছেলে মো. জুবায়ের আহমদ এবং মৃত আব্দুল গণির ছেলে মো. রফিককে আটক করা হয়।

তিনি আরও জানান, তাদের জিজ্ঞাসাবাদের একপর্যায়ে নৌকার পাটাতনের নিচে অভিনব কায়দায় বস্তার ভেতর থেকে ৬ কোটি ৯৭ লাখ টাকা মূল্যের ১ কেজি ৬৯ গ্রাম আইস এবং ৫৪ হাজার পিস ইয়াবা পাওয়া যায়। তাদের বিরুদ্ধে পৃথক দুটি মামলা দায়েরের পর জব্দ করা মাদকের চালানসহ টেকনাফ মডেল থানায় হস্তান্তর এবং কাঠের নৌকাটি শুল্ক স্টেশনে জমা দেওয়া হয়েছে।

বলরাম/আরবি

মন্তব্য নেওয়া বন্ধ।

ksrm