অবশেষে মায়ের কোল খুঁজে পেল শিশু ফারহান

অপহরণের প্রায় ছয় মাস পর মায়ের কোল খুঁজে পেয়েছে শিশু ফারহান। গত ১২ ডিসেম্বর সকালে অপহৃত হয়েছিল ৮ মাস বয়সের শিশু ফারহান।

৩১ মে (সোমবার) ফারহানকে সিলেটের হবিগঞ্জ জেলার বাহুবল থানা থেকে উদ্ধার করে কোতোয়ালী থানা পুলিশ। এ সময় গ্রেফতার করা হয় অপহরণে জড়িত দু’জনকে। তারা হলেন- মো. ইসমাইল (৩৫) ও সুলতানা বেগম সুমি (২৬)।

ইসমাইল হবিগঞ্জ জেলার খলিল মিয়ার বাড়ির মো. খলিল পাটোয়ারির ছেলে। সুলতানা একই জেলার চুনারুঘাটের মৃত ইদ্রিস মিয়ার মেয়ে। তার স্বামীর নাম মো. ইসমাইল।

ঘটনার বিবরণে জানা যায়, ফারহানের পরিবারের সঙ্গে পরিচয় ছিল অপহরণকারী সুলতানা বেগমের। গত ১২ ডিসেম্বর সকাল ৮টায় নগরের রেলওয়ে স্টেশন কলোনিতে ফারহানের বাসায় আসেন সুলতানা বেগম। এরপর আদর করার জন্য তসলিমার (ফারহানের মা) কোল থেকে ফারহানকে নিজের কোলে নেন সুলতানা। আদর করার একপর্যায়ে তসলিমার চোখ ফাঁখি দিয়ে সটকে পড়েন সুলতানা।

এ ঘটনায় কোতোয়ালী থানায় মামলার করেন ফারহানের মা। সেই মামলার তদন্ত করতে গিয়ে দীর্ঘদিন পর অপহরণকারীদের সন্ধান পায় পুলিশ। চালানো হয় অভিযান।

অভিযানে নেতৃত্ব দেওয়া কোতোয়ালী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) নেজাম উদ্দীন বলেন, অপহরণের দীর্ঘদিন পর তথ্য প্রযুক্তি ও সিলেট কোতোয়ালী থানার সহায়তায় অপহরণ চক্রের হোতাদের অবস্থান নিশ্চিত হই। এরপর সিলেটের হবিগঞ্জ জেলার বাহুবল থানা এলাকায় অভিযান চালিয়ে ফারহানকে উদ্ধার করি। একইসঙ্গে গ্রেফতার করি অপহরণের মূল পরিকল্পনাকারী তসলিমা বেগম এবং সহযোগী তার স্বামী ইসমাইলকে।

আরবি

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm